আফগানিস্তান: কর্মজীবী নারীদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে তালেবান

তালেবানের একজন মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেছেন, আফগানিস্তানে কর্মরত নারীদের তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত ঘরে থাকতে হবে।

মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, “এটি খুবই স্বল্প সময়ের জন্য একটি প্রক্রিয়া।”

২০০১ সালের আগে তালেবান, যখন আফগানিস্তান শাসন করতো, তখন তারা কঠোর শরীয়া আইন জারি করেছিল। নয় দিন আগে তারা আবারো আফগানিস্তানের পূর্ণ ক্ষমতা নিয়েছে।

জাতিসংঘ তালেবানদের দ্বারা নির্যাতনের “নির্ভরযোগ্য” কিছু প্রতিবেদন তুলে ধরেছে যার মধ্যে নারীদের উপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি অন্যতম।

এদিকে মঙ্গলবার কাবুলে নিজেদের সংবাদ সম্মেলনে, তালেবান মুখপাত্র রাজধানী কাবুল থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন উচ্ছেদের কথাও তুলে ধরেছেন।

  • মি. মুজাহিদ দেশটির বিমানবন্দরে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে বলেন যে আফগানদের সেদিকে যাওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ নয়।
  • তিনি আরো বলেন, আমেরিকার উচিৎ আফগানদের চলে যাওয়ার জন্য “উৎসাহিত করা” বন্ধ করা কারণ আফগানিস্তানের তাদের প্রতিভার প্রয়োজন রয়েছে।
  • যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স এবং জার্মানি যুক্তরাষ্ট্রের আফগানিস্তান ত্যাগের জন্য বেধে দেয়া ৩১শে অগাস্টের সময়সীমা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে।
  • তবে যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস স্বীকার করেছেন যে, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সময়সীমা বাড়ানোর সম্ভাবনা নেই।।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

Pin It on Pinterest

Share This
Scroll to Top